আমার সম্পর্কে

আমি মুজতবা খন্দকার। ছাত্রজীবন থেকে কলেজ ম্যাগাজিন, সুভেনিরে লেখালেখি শুরু করি। এরপর ১৯৯৩ সাল থেকে ১৯৯৭ সালে বন্ধ হবার আগ পর্যন্ত দৈনিক বাংলার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার। ১৯৯৭ সালের অক্টোবর থেকে ৯৮ সালের আগষ্ট পর্যন্ত দৈনিক আজকের কাগজের স্টাফ রিপোর্টার, এরপর একই বছরের সেপ্টেম্বর থেকে ২০০১ জুন পর্যন্ত দৈনিক মানজমিনের স্টাফ রিপোর্টার। একই বছরের জুলাই থেকে দৈনিক মাতৃভূমির সিনিয়র রিপোর্টার ২০০৩ পর্যন্ত। এরপর প্রখ্যাত সাংবাদিক আতাউস সামাদ সম্পাদিত সাপ্তাহিক এখন এর স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট। ২০০৪ সালে দৈনিক সংবাদের সিনিয়র রিপোর্টার, ২০০৫ সালের সেপ্টেম্বরে বেসরকারি টেলিভিশন এনটিভির সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট হিসেবে যোগদান। ২০০৭ সালে স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট। ২০১০ সাল থেকে টেলিভশনটির বার্তা সম্পাদকের দায়িত্বে আছি

মাঝে বিভিন্ন সাপ্তাহিক পত্রিকায় লেখালেখি এছাড়া পাক্ষিক তারকালোকেও বিশিষ্ট সাংবাদিক চিত্রালীর সাবেক সম্পাদক আহমেদ জামান চৌধুরী ও তারকালোকের সস্পাদক আরেফিন বাদলের অনুপ্রেরণায় কিছুদিন সিনে সাংবাদিকতা করেছি।
২০০২ থেকে জাতীয় প্রেসক্লাবের স্থায়ী সদস্য, ১৯৯৮ সাল থেকে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির স্থায়ী সদস্য এছাড়া ল রিপোর্টাস ফোরামের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এবং বর্তমান স্থায়ী সদস্য।
Shares